• শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০২:৩১ পূর্বাহ্ন
  • [gtranslate]

কিশোরীকে ধর্ষণ-হত্যার দায়ে একজনের ফাঁসির আদেশ

নিজস্ব প্রতিনিধি
প্রকাশিত : সোমবার, ৮ আগস্ট, ২০২২

রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলায় এক কিশোরীকে ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে একজনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালতের বিচারক। রোববার বিকালে রংপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-১ এর বিচারক তারিক হোসেন এ রায় প্রদান করেন।

রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে তাকে রংপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আদালত ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার নরসিংপুর বাউড়া কোর্ট গ্রামের মোতালেব হোসেনের কিশোরী কন্যার সঙ্গে একই গ্রামের জাহাঙ্গীর হোসেনের ছেলে নাহিদ হাসান প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। একপর্যায়ে তারা শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে। এতে কিশোরী মেয়েটি ৪ মাসের গর্ভবতী হয়ে পড়ে। বিষয়টি জানাজানি হবার পর কিশোরী মেয়েটিকে তার স্বজনরা নাহিদ হাসানকে বিয়ে করার জন্য জানালে সে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায় এবং নানান টালবাহানা শুরু করে।

এরই ধারাবাহিকতায় ২০২১ সালের ২২ এপ্রিল আসামি নাহিদ হাসান কিশোরী মেয়েটিকে মোবাইল ফোনে ডেকে আনে। এরপর বাড়ির অদূরে ভুট্টা ক্ষেতে নিয়ে মেয়েটিকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা করে লাশ ফেলে চলে যায়। দুদিন পর নিহত মেয়েটির লাশ ভুট্টা ক্ষেতে দেখতে পেয়ে এলাকাবাসী মিঠাপুকুর থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় নিহত মেয়ের বাবা বাদী হয়ে মিঠাপুকুর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ গ্রেফতার করলে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় নাহিদ হাসান।

মামলায় ১৪ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য ও জেরা শেষে বিজ্ঞ বিচারক আসামি নাহিদ হাসানকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের আদেশ দিয়ে রায় প্রদান করেন।

সরকার পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট নয়নুর রহমান টফি এবং আসামিপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট আব্দুল হক প্রামাণিক।


এ জাতীয় আরও খবর :