• শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ১২:০২ অপরাহ্ন
  • [gtranslate]

কালীগঞ্জে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯২ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন ও সেলাই মেশিন বিতরণ

নিজস্ব প্রতিনিধি
প্রকাশিত : সোমবার, ৮ আগস্ট, ২০২২

কালীগঞ্জে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯২ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন ও সেলাই মেশিন বিতরণ

আমাদের রংপুর ডেক্সঃ
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মীনি বঙ্গমাতা ফজিলাতোন নেছা মুজিবের ৯২ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন
উপলক্ষে লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন ও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যলয়ের উদ্যোগে নানা কর্মসূচী পালন করা হয়।

দিবসটির উপলক্ষে গরিব দুঃস্থ্য,অসহয় নারীদের উপায়ের মাধ্যমে আর্থিক সহযোগীতা প্রদান, সেলাই মেশিন বিতরণ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সোমবার সকাল ১০টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল মান্নানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালী সংযুক্ত থেকে বক্তব্য রাখেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ এমপি।
মন্ত্রী বলেন, বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব শুধু একটি নামই নয় একটি প্রতিষ্ঠান। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জীবনের সহধর্মীনি অনেক গুনের অধিকারি। বঙ্গবন্ধু তাঁর জীবনে বেশিভাগ সময় বিভিন্ন সংগ্রাম ও আন্দোলনে জেলে কেঁটেছেন। সেই সময় বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব দলের নেতা কর্মীদের পাশে থেকে সাহস ও সহযোগীতা করে দলকে এগিয়ে নিয়েছেন। ১৯৭৫ সালে দেশ বিরোধী শক্তি ও দেশের কিছু উচ্চাভিলাসি বিপদগামী সেনা কর্মকর্তা তাঁকে ও তাঁর পরিবারে সদস্যকে কাপুরুষের মত হত্যা করেছিল৷
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু যখন জেলে থাকতেন বঙ্গমাতা জেল খানা থেকে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশ,পরামর্শ দলের নেতাদের কাছে পৌঁছে দিতেন। ১৯৩০ সালে ৮ আগস্ট গোপালগঞ্জে টুঙ্গিপাড়ায় জন্ম নেয়া বঙ্গমাতার শৈশব কেটেছ গ্রামে।
১৯৫৪ সালে যুক্তফ্রন্ট ক্ষমতায় এলে বঙ্গমাতা প্রথম ঢাকায় আসেন।তিঁনি সবসময় বঙ্গবন্ধুর পাশে থেকে সাহস ও পরামর্শ দিতেন।১৯৭১সালে ৭ মার্চে ঐতিহাসিক ভাষনের সময় আগে অনেক নেতা কর্মী বঙ্গবন্ধুকে নানা পরামর্শ দিতেন। কিন্তু বঙ্গমাতা তাঁর মাথায় হাত বুলিয়ে বলেছিলেন,গোটা জাতির ভাগ্য তোমার ভাষণের অপেক্ষায়। তুমি তাদের কথা তাদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে নিজের মনে যা আসে সেই বক্তব্য দিবে, কারণ তোমার সামনে লাখো মানুষ উপরে ও পিছনে মরনাস্ত্র।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মাহবুবুজ্জামান আহমেদ। আমন্ত্রিত অতিথি ছিলেন, সহকারি কমিশনার (ভূমি) ইসরাত জাহান ছনি, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু বক্কর সিদ্দিক, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজনিন রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সহিদার রহমান, সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) মিজানুর রহমান মিজু, তুষভান্ডার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নুর ইসলাম আহমেদ, কমিউনিটি পুলিশিং এর সভাপতি মিজানুর রহমান, প্রেসক্লাব সভাপতি আমিরুল ইসলাম হেলাল, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রেফাজ উদ্দিন রাঙ্গা,।উপজেলা পর্যায়ের বিভিনন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ফেরদৌস আহমেদ।

দিবসটি উপলক্ষে কালীগঞ্জ উপজেলামহিলা বিষয় কার্যালয়ের আযোজনে ০৭ জন গরিব দুঃস্থ্য,অসহয় নারীকে উপায়ের মাধ্যমে আর্থিক সহযোগীতা প্রদান, ৭ জন গরিব দুঃস্থ্য,অসহয় নারীকে ৭টি সেলাই মেশিন বিতরণ করা হয়।


এ জাতীয় আরও খবর :