• শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৩:০৩ পূর্বাহ্ন
  • [gtranslate]

স্বামী হত্যা মামলায় স্ত্রী ও প্রেমিকের যাবজ্জীবন

নিজস্ব প্রতিনিধি
প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১২ এপ্রিল, ২০২২

সাজাপ্রাপ্ত দুজন হলেন নিহত হামিদের স্ত্রী মনোয়ারা খাতুন ও তাঁর প্রেমিক সিরাজুল ইসলাম। রায় ঘোষণার সময় দুজনই আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

রিকশাচালক হামিদার রহমানের স্ত্রী মনোয়ারা খাতুনের সঙ্গে একই গ্রামের সিরাজুল ইসলামের পর

কীয়া ছিল। ২০১৮ সালের ২৩ জানুয়ারি বিকেলে মনোয়ারা খাতুন ও সিরাজুল ইসলামকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পান হামিদার। তিনি উত্তেজিত হয়ে বাড়ির রান্নাঘরের দিকে গেলে সিরাজুল ও মনোয়ারা রান্নাঘরে যান। সেখানে তাঁদের মধ্যে ধস্তাধস্তি শুরু হয়। একপর্যায়ে হামিদার রান্নাঘরের মেঝেতে পড়ে যান। এ সময় মনোয়ারার সহায়তায় দা দিয়ে হামিদারকে গলা কেটে হত্যা করে পালিয়ে যান সিরাজুল।

লালমনিরহাট দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর আকমল হোসেন আহমেদ বলেন, সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা এই মামলায় ইতিমধ্যেই যত দিন হাজতবাস করেছেন, ঘোষিত দণ্ড থেকে তা বাদ যাবে। ঘটনাটি মর্মান্তিক ও পরকীয়ার করুণ পরিণতি।

সিরাজুলের আইনজীবী ময়জুল ইসলাম বলেন, তাঁর মক্কেল নির্দোষ, তাঁর বিরুদ্ধে ঘোষিত দণ্ড মওকুফের জন্য উচ্চ আদালতে আপিল করা হবে। তবে রায়ের বিষয়ে মনোয়ারার আইনজীবী মশিউর রহমানের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।


এ জাতীয় আরও খবর :